1. admin@dainikamarbiswanath.com : admin :
বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:৫৫ অপরাহ্ন

বিশ্বনাথে ১ বছর ধরে মেম্বার লন্ডনে: ব্যাহত হচ্ছে নাগরিক সেবা

  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৩১০ বার পঠিত

মোঃ সায়েস্তা মিয়া, বিশ্বনাথ থেকেঃ সিলেটের বিশ্বনাথ উপেজলার ২ নং খাজাঞ্চী ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের মেম্বার ফখরুল ইসলাম প্রায় ১ বছর ধরে লন্ডনে বসবাস করছেন। গেল বছরের ২০/০৯/২২ ইং তারিখে তিনি লন্ডন যান। এখন পর‌্যন্ত আর ফিরে আসেননি।এতে নাগরিক সেবা ব্যাহত হচ্ছে চরম ভাবে। উত্তারাধিকারী সনদ, সহ সাধারণ সেবা পেতে দূর্ভোগে আছেন উক্ত ওয়ার্ডবাসী। কবে কখন তিনি ফিরবেন এব্যাপারে কেউ কিছুই জানেন না।
এতে সেবা বঞ্চিত ওয়ার্ডের একাধিক জনসাধারনের নানান অভিযোগ তার বিরুদ্ধে। ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করাটাই প্রথম ভুল হয়েছে বলে মনে করেন এলাকাবাসী ।বিগত ২০২২ সালের ৩১ জানুয়ারী অনুষ্ঠিতব্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেন ফখরুল ইসলাম। নির্বাচনে তালা প্রতীকে অংশ নিয়ে নিকটতম প্রতিদ্বন্ধী বৈদ্যুতিক পাখা মার্কার প্রার্থী মাস্টার আবুল কালামের সাথে প্রতিদ্বন্ধীতা করেন। দুইজনের ভোট সমান সমান হলে বিষয়টি পরে পূনঃনির্বাচনে গড়ায়। ২১ শে মার্চ ২০২২ সালে পূনঃনির্বাচনে তিনি মাস্টার আবুল কালামের থেকে ৭০ ভোট বেশি পেয়ে ওয়ার্ড সদস্য নির্বাচিত হন। দায়িত্ব গ্রহণের কয়েক মাস পরে তিনি লন্ডনে চলে যান। অদ্যবদি লন্ডনে থাকায় এলাকাবাসি চরম ভাবে উন্নয়ন ও সেবা বঞ্চিত বলে দাবী ওয়ার্ডবাসীর। আব্দুল আহাদ নামের এক ভুক্তভোগি জানান আমি একটি উত্তরাধিকারী সার্টিফিকেটের জন্য অনেক সময় ব্যয় করেছি তিনি দেশে না থাকায় এ সময় ব্যয় হয়েছ্ পরে সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড সদসদ্য দ্বারা কাজটি করতে হয়েছে ।নিজাম উদ্দিন নামের একজন জানান, তিনির পিতার বয়স্কভাতার সমস্যা আছে কিন্তু তিনি সমাধান করতে পারছেন না।এছাড়া স্থানীয় রাস্তা ঘাটের উন্নয়ন নেই বলে জানান আব্দুন নুর নামের আরেকজন।

এব্যাপারে খাজাঞ্চী ইউপি চেয়ারম্যান আরশ আলী’র কাছে জানতে চাইলে মেম্বার দীর্ঘদিন ধরে অনুপস্থিত থাকার বিষয়টি স্বীকার করে তিনি বলেন, মোঃ ফখরুল ইসলাম লন্ডনে যাওয়ার পূর্বে আমার নিকট দরখাস্ত দিয়ে যান । তিনি লন্ডনে যাওয়ার পর থেকে ওয়ার্ডবাসী ঠিকমত সেবা পাচ্ছে না। দীর্ঘদিন দেশে না ফেরায় বিষয়টি আমি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট লিখিত ভাবে জানিয়েছি।

নির্বচানী আচরণ বিধি ও জনপ্রতিনিধিত্ব আইনে কোন চেয়ারম্যান বা কোন সদস্যকে পরিষদ যুক্তিসঙ্গত কারণে ১ (এক) বৎসরে সর্বোচ্চ ৩ (তিন) মাস ছুটি মঞ্জুরের বিধান এবং ৩ (তিন) মাসের অধিক ছুটি প্রয়োজন হলে সরকারের অনুমোদন গ্রহণ করতে হবে এমন বিধান থাকলেও তিনি ১ বছর অনুপস্থিত থাকার কারণে কি কোন ব্যবস্থা নেওয়া হবে? জানতে চাইলে বিশ্বনাথ উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুসরাত জাহান বলেন, আমি চেয়ারম্যানের কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি এবং বিষয়টি জেলা কর্তৃপক্ষের নিকট প্রেরণ করেছি। নির্বাচন কমিশন কর্তৃক পদটি শুন্য ঘোষনা হলে সময় মত পুনঃনির্বাচন অুনিষ্ঠত হবে।

Facebook Comments Box
More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ দৈনিক আমার বিশ্বনাথ
Theme Customized By Shakil IT Park